ঢাকা শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১

Motobad news
হত্যা মামলা করতে থানায় মিতুর বাবা

বাদি বাবুলই এখন এক নম্বর আসামি!

বাদি বাবুলই এখন এক নম্বর আসামি!
ছবি : সংগৃহীত

পাঁচ বছর আগে চট্টগ্রামে স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যায় বাদি ছিলেন স্বামী সাবেক পুলিশ সুপার(এসপি) বাবুল আক্তার। তদন্তে তার বিরুদ্ধেই হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় মিতুর বাবা মোশারফ হোসেন চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানায় অবস্থান করছেন।

এদিকে সূত্রে জানা গেছে, মিতু হত্যায় সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারের দেয়া মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন নিয়ে চট্টগ্রাম মহানগর আদালতে অবস্থান করছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা সন্তোষ কুমার চাকমা।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার (১১ মে) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাবুল আক্তারকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

বুধবার (১২ মে) বেলা ১১টা ৪৫ মিনিটে রাজধানীর ধানমন্ডির পিবিআইয়ের প্রধান কার্যালয়ে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে পিবিআই প্রধান উপ-মহাপরিদর্শক বনজ কুমার মজুমদার। তিনি বলেন, মিতু হত্যার সঙ্গে বাবুল আক্তারের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে। নতুন মামলা হলেই তিনি গ্রেফতার হবেন মিতুর বাবা বাদি হয়ে মামলা করবেন। প্রস্তুতি চলছে।

উপ-মহাপরিদর্শক বনজ কুমার মজুমদার আরও বলেন, বাবুল আক্তারকে আজ গ্রেফতার দেখানো হবে এবং আগের মামলা ফাইনাল রিপোর্ট দেবে পুলিশ। মিতুর বাবা বাদী হয়ে বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা করবে। এজাহার প্রস্তুত করা হয়েছে।

২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে নগরের ও.আর নিজাম রোডে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার পথে গুলি ও ছুরিকাঘাতে নিহত হন বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু। এ ঘটনায় বাবুল আক্তার বাদী হয়ে পাঁচলাইশ থানায় হত্যা মামলা করেন। তবে বাবুল আক্তার মামলার বাদী হলেও তার শ্বশুর মোশাররফ হোসেন অভিযোগ করে আসছেন, বাবুল আক্তার তার মেয়ের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত।


এমবি