ঢাকা শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

Motobad news

টি-টোয়েন্টি অধিনায়কও সাকিব

টি-টোয়েন্টি অধিনায়কও সাকিব
গুগল নিউজে (Google News) দৈনিক মতবাদে’র খবর পেতে ফলো করুন

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দ্বিতীয়বারের মতো টেস্ট ক্রিকেটে অধিনায়কের দায়িত্ব নেন সাকিব আল হাসান। এক মাসের ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের নেতৃত্বেও ফিরলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার। সিদ্ধান্তটা আগে নেওয়া থাকলেও নতুন করে অধিনায়কত্ব দিতে বৈঠকে বসেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। কেননা সাম্প্রতিক সময়ে সাকিবের নানা কর্মকাণ্ডে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েছে বাংলাদেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা। ফলে সাকিবের সঙ্গে আলোচনার পরই সিদ্ধান্ত নিলো তারা।

আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত এই সংস্করণে অধিনায়ক থাকবেন সাকিব। আজ (শনিবার) গুলশানে সংবাদমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। তিনি জানিয়েছেন, শুধু এশিয়া কাপ নয়, নিউজিল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অধিনায়ক থাকবেন সাকিব।

মিরপুরে বিসিবি কার্যালয়ে নির্বাচক, টিম ডিরেক্টর ও ক্রিকেট অপারেশনস বিভাগের মিটিং হওয়ার কথা ছিল। দুপুর গড়াতেই মিটিং চলে যায় গুলশানে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের বাসভবনে। বিকাল ৩টা ১০ মিনিটে বিসিবি সভাপতির বাসায় প্রবেশ করেন সাকিব। এরপর টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনসহ ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বৈঠকে অংশ নেন। এছাড়া সেখানে ছিলেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন।

সাকিবকে টি-টোয়েন্টির দায়িত্ব দেওয়া অনেকটা নিশ্চিতই ছিল। তবে বেটিং প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার কারণে বিলম্ব হয়েছে। কেননা বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী, অনলাইন বেটিং বা জুয়া পুরোপুরি নিষিদ্ধ। এ নিয়ে আইসিসি ও বিসিবির কঠোর বিধিনিষেধও আছে। বিষয়টি সমাধানের পরই মূলত সাকিবের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয় বিসিবি।

২০১৯ সালে আইসিসি কর্তৃক নিষিদ্ধ হওয়ার আগে সাকিবই ছিলেন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। তিনি নিষদ্ধ হওয়ার পর মাহমুদউল্লাহর কাঁধে যায় নেতৃত্ব। জিম্বাবুয়ে সিরিজের আগ পর্যন্ত তিনিই ছিলেন অধিনায়ক। ওই সফরের প্রথম দুই টি-টোয়েন্টিতে নুরুল হাসান সোহান ও শেষে ম্যাচে মোসাদ্দেক হোসেন দলকে নেতৃত্ব দেন।

মূলত জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই অধিনায়কত্বে ফেরার কথা ছিল সাকিবের। কিন্তু সিরিজ থেকে ছুটি নেওয়ায় আফ্রিকার দেশটির সফরে দায়িত্ব নিতে পারেননি তিনি। অনেক জল ঘোলার পর আসন্ন এশিয়া কাপ থেকে দ্বিতীয় দফায় নেতৃত্ব শুরু করবেন বাঁহাতি অলরাউন্ডার।

২০০৯-১০ মৌসুমে ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক হিসেবে চার ম্যাচে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সাকিব। এরপর ২০১৭ সালে মাশরাফি বিন মুর্তজার অবসরের পর প্রথম দফায় টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব দেওয়া হয় সাকিবকে। কিন্তু নিষেধাজ্ঞার কারণে নেতৃত্ব চালিয়ে যেতে পারেননি।

সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত তার অধীনে ২১টি কুড়ি ওভারের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। যেখানে জয় ৭ ম্যাচে। এবার এশিয়া কাপ দিয়ে শুরু হবে সাকিবের নতুন অধ্যায়। কুড়ি ওভারের ফরম্যাটে বাংলাদেশকে তিনি কতটা বদলে দিতে পারেন, সেটিই এখন দেখার!


এইচকেআর
গুগল নিউজে (Google News) দৈনিক মতবাদে’র খবর পেতে ফলো করুন