ঢাকা মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১

Motobad news

হাতে-পায়ে ব্যান্ডেজ নিয়ে বিয়ের আসরে বর!

হাতে-পায়ে ব্যান্ডেজ নিয়ে বিয়ের আসরে বর!

বিয়ের দিন, মানে হল জীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দিন। এদিন সাধারণত জাঁকজমক আর আড়ম্বরপূর্ণ পোশাকই পরেন বর-কনে। আর তা হবেই বা না কেন! এই একটা দিন যে সারা জীবনের স্মৃতি। অনেকে তো নিজস্ব ঐতিহ্যের বাইরে গিয়ে নতুন নতুন পোশাক পরে দিনটিকে আরও স্মরণীয় করে রাখেন, অন্যদের দিতে চান চমকও। কিন্তু তাই বলে শর্টস পরে বিয়ে?

হ্যাঁ, এমনই এক ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ ইন্দোনেশিয়ায়। দেশটির পূর্ব জাভা প্রদেশে সম্প্রতি একটি বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। কিন্তু এরপরই সেই বিয়ে ও বিয়ের ছবি ভাইরাল হয়েছে অনলাইনে। ভাইরাল হওয়া বিয়ের আসরের ওই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, কনের পাশে রীতিমতো খালি গায়ে বর বসে আছেন হাফপ্যান্ট পরে!

শুধু কি তাই? এক হাতে স্লিং, অন্য হাতে ব্যান্ডেজ, একই জিনিস আছে দুই হাঁটুতেও। এছাড়া হাতের কব্জিতে ব্যান্ডেজসহ আছে আরও কয়েকটি আঘাতের চিহ্ন। কনের পাশে বসে মুখটাও মলিন। কিন্তু কেন? কিভাবে হলো এসব! আর এভাবে বিয়ে করতে আসার, বলা ভালো- বিয়েতে হাজির হওয়ার কারণটাই বা কি?

না, এটা কোনো মজার ঘটনা নয়। এমনকি ইচ্ছাকৃত ভাবেও বর এসব কিছু করেননি। বরং কিছুটা হাস্যরসের সৃষ্টি করা এই ঘটনার পিছনে লুকিয়ে আছে ছোট্ট বিষাদ। বলা ভালো- একটি ছোট্ট দুর্ঘটনা।

বিয়ের চারদিন আগে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হয়েছিলেন বর। আঘাতও পান বেশ ভালোমতোই। তার শরীরে যেমন আঘাত লেগেছে, তাতে বরের প্রথাগত পোশাক পরে বিয়ে করতে আসা সম্ভব হয়নি ওই ছেলের পক্ষে।

তাই বাধ্য হয়ে তাকে এই অদ্ভুত পোশাকেই বিয়ে করতে আসতে হলো। পরনে কেবল শর্টস, হাতে আর্ম স্লিং, হাঁটুতে ব্যান্ডেজ। প্রথাগত পোশাক না পরা হোক, তাতে কী! বিয়েটা তো অন্তত হলো।

তবে দুর্ঘটনায় পড়ে বর মলিন থাকলেও সাজগোজের কোনো কমতি ছিল না কনের মধ্যে। নিজস্ব প্রথা মেনেই  সুন্দর পোশাক পরে বিয়েতে হাজির ছিলেন তিনি। বাকিটা তো ছবিতে দেখাই যাচ্ছে।


/ইই