ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

Motobad news

১১ দফা দাবিতে সারা দেশে নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতি

১১ দফা দাবিতে সারা দেশে নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতি
গুগল নিউজে (Google News) দৈনিক মতবাদে’র খবর পেতে ফলো করুন

বেতন-ভাতা বৃদ্ধির গেজেট বাস্তবায়ন, নিয়োগপত্র, পরিচয়পত্র ও সার্ভিস বুক, সামাজিক নিরাপত্তা এবং ভারতগামী জাহাজে ল্যান্ডিং পাশ প্রদানসহ ১১ দফা দাবিতে সোমবার মধ্য রাত থেকে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি শুরু করছে নৌযান শ্রমিকরা।

নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের আহবানে এই কর্মবিরতির ফলে আজ মধ্য রাত থেকে সারা দেশে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে। এই দাবি আদায়ে বরিশাল নদী বন্দরে বিক্ষোভ করেছে নৌযান শ্রমিকরা। 

১১ দফা দাবিতে নৌযান শ্রমিকদের আন্দোলন শুরু হয়েছিলো ২০১৬ সালে। এরপর কয়েক দফা আন্দোলনের প্রেক্ষিতে সরকার ২০২২ সালের নভেম্বরে নৌযান শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধিসহ অন্যান্য দাবি বাস্তবায়নে একটি গেজেট প্রকাশ করে। কিন্তু আজ পর্যন্ত ওই গেজেট বাস্তবায়ন না হওয়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন নৌযান শ্রমিকরা। নিয়োগপত্র, পরিচয়পত্র ও সার্ভিস বুক প্রদানসহ অন্যান্য দাবি বাস্তবায়ন না হওয়ায় অনিশ্চয়তায় কাটছে নৌযান শ্রমিকদের জীবন। 

বরিশালের অভ্যন্তরীণ রুটের একটি নৌযানের কোয়ার্টার মাস্টার সুলতান হাওলাদার জানান, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি। জীবন যাত্রার ব্যয় বেড়েছে। এ অবস্থায় স্বল্প বেতনে তাদের সাংসার চলছে না। পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন তারা। ২০২২ সালের নভেম্বরে সরকার ঘোষিত বেতন কাঠামো বাস্তবায়নসহ নৌযান শ্রমিকদের সামাজিক নিরাপত্তার নিশ্চয়তা চান তারা। 
নৌযান শ্রমিক আজাদ হোসেন বলেন, নৌযান শ্রমিকদের চাকুরির নিশ্চয়তা নেই। মৌখিক ভিত্তিতে কাজ করেন তারা। নানা অজুহাতে শ্রমিকদের চাকুরি থেকে অব্যাহিত দেয় মালিকরা। এক-দুই যুগ কাজ করার পরও খালি হাতে বাড়ি ফিরতে হয় নৌযান শ্রমিকদের। 

সরকার ঘোষিত গেজেট বাস্তবায়নে সোমবার মধ্য রাত থেকে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতিতে যাচ্ছেন নৌযান শ্রমিকরা। কর্মবিরতির ফলে যাত্রী, পণ্য, জ্বালানি ও নির্মাণ সামগ্রীবাহি নৌযানসহ সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ লঞ্চ লেবার এসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বজলুর রহমান। 

নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন বরিশাল বিভাগীয় কমিটির সভাপতি শেখ আবুল হাশেম বলেন, অতীতে বহুবার আশ্বাস দিয়েও সরকার এবং মালিকরা শ্রমিকদের দাবি বাস্তবায়ন করেনি। এবার দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তাদের কর্মবিরতি চলবে। 

যাত্রী ও পণ্য পরিবহন বন্ধ করে আন্দোলনের বিষয়ে জানতে চাইলে শেখ আবুল হাশেম বলেন, তারা জনগণকে জিম্মি করতে চান না। শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার আদায়ে সংগ্রাম করছেন। সরকার আজকের মধ্যে এই দাবি মেনে নিলে কর্মসূচি প্রত্যাহার করবেন শ্রমিকরা। অন্যথায় দাবি আদায়ে লাগাতার কর্মবিরতি চলবে। 

এদিকে ১১ দফা দাবি আদায়ে সকাল ১১টায় বরিশাল নদী বন্দরে বিক্ষোভ করে নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন। বিক্ষোভ থেকে নৌযান শ্রমিকদের দাবি দ্রুত সময়ের মধ্যে বাস্তবায়নের দাবি জানান তারা। 


এইচকেআর
গুগল নিউজে (Google News) দৈনিক মতবাদে’র খবর পেতে ফলো করুন