বরিশালে কাথলিক বিশপ সুব্রতর নাচ-গানের অনুষ্ঠান নিয়ে ক্ষোভ

মতবাদ ডেস্ক | ১৮:৪৬, এপ্রিল ২৩ ২০১৯ মিনিট

হেনরী স্বপন : রোম যখন পুড়ছিল তখন সম্রাট নিরো নাকি বাঁশি বাজাচ্ছিল। শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোর গির্জায় যখন আত্মঘাতী হামলায় শত শত মানুষ নিহতের অকস্মিকতায় শোকসন্তপ্ত বিশ্ববাসী, তখন বরিশাল কাথলিক ডাইওসিসের বিশপ লরেন্স সুব্রত হাওলাদার চার্চ চত্বরে করছেন ধামাকা সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।   গতকাল ২২ এপ্রিল, বরিশাল কাথলিক ডাইওসিসের বিশপ লরেন্স সুব্রত হাওলাদার বিভাগীয় শহর বরিশাল ধর্মপল্লির সকল পুরোহিত, সিস্টার, ব্রাদার এবং সাধারণ খ্রিষ্টভক্তদের নিয়ে ডাইওসিসের হলরুমে নাচ, গান এবং ব্যান্ড-শো এর মাধ্যমে জাক-জমকপূর্ণ এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন এবং সেখানে বিশপ নিজে উপস্থিত থেকে দেড়-ঘণ্টার এই আনন্দ আয়োজন উভোগ করেন।   উল্লাস করেন, আগত শিল্পী এবং অতিথিবৃন্দের সঙ্গে। শ্রীলঙ্কার খ্রিস্টান সমাজের এই সঙ্কটময় মুহূর্তে বরিশাল কাথলিক ডাইওসিসের বিশপ সুব্রতর এ রকম একটি সংস্কৃতিক আয়োজনকে বরিশালের সর্বস্তরের সুধীজন ধিক্কার জানিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে রামকৃষ্ণ মিশনের মহারাজ এবং জামে কসাই মসজিদের ইমাম ও বরিশালের সকল নেতৃবৃন্দ এটিকে স্রেফ ধর্মীয় মানবতার আবমাননা বলে আখ্যায়িত করেছেন।   বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশের খ্রিস্টান ক্যাথলিক সম্প্রদায়ের সর্বোচ্চ ধর্মগুরু আর্চ বিশপ কার্ডিনাল প্যাট্রিক ডি. রোজারিওর সঙ্গে তাঁর বোমাইলে যোগাযোগ করলে, তিনি বলেছেন,“বিষয়টি স্থানীয় বিশপের নিজস্ব বিষয়, তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে এমোন একটি আয়োজন খুবই দুঃখজনক।’’ [caption id="attachment_17356" align="aligncenter" width="544"] সঙ্গীতানুষ্ঠান শেষে বিশপ সুব্রত হাওলাদারের সাথে সেলফি তুলছেন আগত তরুণরা[/caption] শ্রীলঙ্কার ভয়াবহ এমন হত্যাযজ্ঞের শোকাবহতার মধ্যেও বরিশাল কাথলিক চার্চে অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন সম্পর্কে জানার জন্য, বিশপকে ফোন করে পাওয়া যায়নি। তবে বিশপ হাউজের ভিকার জেনারেল মিলন দেউরির সাথে যোগাযোগ করলে, তিনি বলেন, “অনুষ্ঠানটি পূর্ব নির্ধারিত ছিল, তাই করেছি। অনুষ্ঠানের শুরুতে মৃতদের জন্য প্রার্থনা করা হয়েছ।”   কিন্তু বরিশালে নবগঠিত কাথলিক ডাইওসিসের বিশপ লরেন্স সুব্রত হাওলাদারের সকল কার্যক্রমেই তার একক আধিপত্যের দুর্নাম রয়েছে। জানা যায়, চার্চের পরিচালিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কেবল নিজের ভাই, ভাইয়ের বৌ এবং আত্মীয়দের কাজ দিয়েছেন। উদয়ন স্কুলের সদ্য বিদায়ী প্রধান শিক্ষক ব্রাদার আলবার্ট রত্ন সিএসসি এর কাছ থেকে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হিসেবে লক্ষাধিক টাকা নিজের কাজের জন্যে নিয়েছেন। স্কুলের তহবিলের সঠিক হিসেব দিতে না পেরে ব্রাদার রত্নকে বরিশাল ছেড়ে চলে যেতে হয়েছে।   এদিকে নব-গঠিত ডাইওসিস উন্নয়নের লক্ষ্যে সাগরদী আরিয়েন্টাল ধ্যানাশ্রমের বহুতল ভবন নির্মাণের এবং নতুন বিশপ হাউজ নির্মাণের নামে লাখ লাখ টাকা আত্মসাত করে নিজের ভাইয়ের নামে গোলপুকুর পাড়ে ৪০ লাখ টাকায় ভবনসহ একটি প্লট কিনে দিয়েছে। তার দ্বারা এ অঞ্চলের কোনও ধর্মপল্লির তেমন কোনোই উন্নয়ন হয়নি। বরং এ পর্যন্ত বিশপের অধিকাংশ কার্যকলাপই ধর্মীয় অনুভূতির ক্ষেত্রে বিতর্কিত হওয়ায় এখানকার আধিকাংশ খ্রিস্টভক্তই তাঁকে আধ্যাত্মিক ধর্মগুরু হিসেবে কেউই ন্যূনতম সম্মান করেন না।   ২১ এপ্রিল শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় রবিবার খ্রীস্টান ধর্মাবলম্বীদের ইস্টার সানডে উদযাপনকালে তিন গির্জা এবং তিন হোটেলে আইএসের হামলায় নিহতের সংখ্যা ৩ শতাধিক হয়ে দাঁড়িয়েছে, আহত অন্তত ৫শ’ বেশি। নিহতদের ৩৫ জন বিদেশী পর্যটক ছিলেন। পর্যটকদের মধ্যে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর পরিবারের একজন শিশুও এই হামলায় নিহত হয়েছে। সোমবার রাত থেকে দেশটিতে জরুরী অবস্থা জারি করা হয়েছে।   নৃশংস এ হামলার শোকস্তব্দ বিশ্ববাসী এবং জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে বিশ্বের সকল নেতৃবৃন্দ নিন্দা জানিয়েছেন এবং মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কায় দেশটিতে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে। কিন্তু বরিশালের দাম্ভিক বিশপ এবং তার ফাদার-সিস্টার-ব্রাদারগণ এতটাই আহাম্মক যে শ্রীলঙ্কার নিষ্ঠুর সহিসংতার মতো এই ভয়ঙ্কর হামলা ও এতো মানুষের মৃত্যুর খবর শুনেও এরা মেটেই মর্মাহত নন।