ঘুষ আদান-প্রদানকারী দু’পক্ষই শাস্তি পাবে : প্রধানমন্ত্রী

মতবাদ ডেস্ক | ২২:২১, জুন ১২ ২০১৯ মিনিট

দুর্নীতি রোধে বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করছে সরকার। সরকারের লক্ষ্য দুর্নীতি শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা। বর্তমান সরকার তৃতীয়বার দায়িত্ব গ্রহণের পর দেশের জনগণের কল্যাণে এবং দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়ার লক্ষ্যে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে বলে জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (১২ জুন) জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে এক প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান প্রধানমন্ত্রী। তারকা চিহ্নিত প্রশ্নটি করেন বেগম রওশন আরা মান্নান। প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুর্নীতি প্রতিরোধে দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) শক্তিশালী করা, জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম জোরদার এবং আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দুর্নীতি শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার বিশেষ পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে। এর মাধ্যমে সরকার দুর্নীতির বিষবৃক্ষ সম্পূর্ণ উপড়ে ফেলে দেশের প্রকৃত আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও জনকল্যাণে একটি সুশাসনভিত্তিক প্রশাসনিক কাঠামো ও কল্যাণমূলক রাষ্ট্র গঠন করতে বদ্ধপরিকর, বলেন তিনি। এ সময় পুলিশের ডিআইজি মিজানুর রহমানের সম্পদ অনুসন্ধানে খন্দকার এনামুল বাছিরের ঘুষ গ্রহণ ও তথ্য পাচারের অভিযোগের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান প্রধানমন্ত্রী। পুলিশের কেউ অনিয়ম করলে ছাড় পাবে না বলে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ঘুষ আদান-প্রদানকারী দু’পক্ষের বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন: অপরাধী, অপরাধীই; ছোট অপরাধীদের ধরা যাবে আর বড় অপরাধীদের ধরা যাবে না, তা হবে না। তিনি বলেন, দুদকের কেউ কেউ নিজেরাই দুর্নীতির সাথে যুক্ত এমন জনশ্রুতি যেন না হয়, সেজন্য দুদককে সচেতন হতে হবে।