বরিশাল বিভাগে কখন ও কোথায় ঈদের জামাত

স্টাফ রিপোর্টার | ০২:১২, আগস্ট ১১ ২০১৯ মিনিট

বরিশালে ঈদুল আজহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায় হেমায়েতউদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে। সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ, বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী, জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমানসহ শীর্ষ রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক নেতৃবৃন্দ এবং প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তা ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি পেশার কয়েক হাজার ধর্মপ্রাণ মুসল্লি প্রধান জামাতে ঈদের নামাজ আদায় করার কথা রয়েছে। মাওলানা সিহাবউদ্দিন বেগ প্রধান জামাতে ইমামতি করবেন। এদিকে, পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী ও সদর আসনের এমপি কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম ঈদ জামাত আদায় করবেন নগরীর করিম কুটির জামে মসজিদে সকাল ৮টায়। বরিশাল বিভাগে সর্ব বৃহৎ ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে সদর উপজেলার চরমোনাই দরবার শরীফ মাঠে সকাল সাড়ে ৮টায়। পীর সাহেব চরমোনাই মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করিম এখানে ঈদ জামাতে ইমামতি করবেন। বিভাগের দ্বিতীয় বৃহত্তম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে পিরোজপুরের ছারছিনা দরবার শরীফ ময়দানে সকাল ৮টায়। বিভাগের তৃতীয় বৃহত্তম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে ঝালকাঠীর এনএস কামিল মাদ্রাসা মাঠে সকাল ৮টায়। পটুয়াখালীর মীর্জাগঞ্জ হযরত ইয়ারউদ্দিন খলিফা (রা.) মাজার শরীফে সকাল সাড়ে ৭টায় এবং ভোলা কেন্দ্রিয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায়। জেলার উজিরপুরের গুঠিয়ার দৃষ্টিনন্দন বায়তুল আমান মসজিদ কমপ্লেক্সে সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে ঈদ জামাত। বরিশালে দুটি করে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে জামে এবাদুল্লাহ মসজিদে সকাল ৮টায় ও সকাল সাড়ে ৯টায়, কেন্দ্রীয় জামে কসাই মসজিদে সকাল ৮টায় ও সাড়ে ৯টায়, জামে বায়তুল মোকাররম মসজিদে সকাল ৮টায় ও ৯টায়, পুলিশ লাইনস মাঠে সকাল ৮টায় ও ৯টায়, নূরিয়া স্কুল ঈদগাহ ময়দানে সকাল সাড়ে ৭টায় ও সকাল সোয়া ৮টায়। এছাড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায়, কেন্দ্রীয় কারাগার জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায়, ল কলেজ জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায়, পোর্ট রোড জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায়, ব্রাউন কম্পাউন্ড জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায়, ফকিরবাড়ি রোড জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায়, পাওয়ার হাউজ জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, খান সড়ক জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, সাগরদী জামে মসজিদে সকাল ৮টায় এবং কালিজিরা কেন্দ্রিয় জামে মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদের প্রধান প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও বরিশাল বিভাগের ৬ জেলা এবং মহানগরীতে বড়-ছোট সহস্রাধিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। অপরদিকে, প্রধান প্রধান জামাতসহ সকল ঈদ জামাতের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নানা পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বরিশাল রেঞ্জর ডিআইজি মো. শফিকুল ইসলাম এবং মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান।