সাংবাদিকতার নামে অপসাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী

স্টাফ রিপোর্টার | ০৫:৪২, সেপ্টেম্বর ০৮ ২০১৯ মিনিট

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উদযাপনের জন্য আহবায়ক কমিটি গঠন, চলতি মাসের ২২ তারিখের মধ্যে প্রেসক্লাবের আসন্ন নির্বাচন সম্পর্কে স্পষ্ট বক্তব্য দেয়া, সাধারণ সম্পাদকের অর্ধবার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন, ফটোসাংবাদিকতার নামে মানুষকে হয়রানী করা, সকল সাংবাদিকদের জন্য ওয়েজবোর্ড দেয়া এবং ক্লাবের বর্তমান সভাপতির সুস্বাস্থ্য কামনার মধ্যদিয়ে শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল প্রেসক্লাবের অর্ধবার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ সকাল ১০টায় ক্লাবের নিজস্ব মিলনায়তনে ক্লাব সভাপতি কাজী নাসির উদ্দিন বাবুলের সভাপতিত্বে সভায় বিগত সভার সিদ্ধান্তসমূহ পাঠ, অর্ধবার্ষিক সাধারণ সভার প্রতিবেদন পাঠ করেন ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এস.এম জাকির হোসেন। তিনি তার রিপোর্টে উল্লেখ করেন, অনলাইন মিডিয়ার কোন পরিসংখ্যান নেই, কোন নীতিমালা না থাকায় ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে উঠেছে অনলাইন সংবাদপত্র। ফলে সাংবাদিকতার নামে চলছে যথেচ্ছাচার। অনলাইন সংবাদপত্রের বিকাশ মিডিয়ার জন্য একটি ভাল লক্ষন হলেও নীতিমালার অভাবে অনেকেই অপসাংবাদিকতা করার সুযোগ পাচ্ছে। এদের অনেকেরই সাংবাদিকতার নূন্যতম জ্ঞান নেই। এ ধরনের অনলাইন সাংবাদিকতার নামে অপসাংবাদিকতার বিরুদ্ধে শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল প্রেসক্লাব তীব্র নিন্দা ও ঘৃনা প্রকাশ করছে। এ সভার মধ্য দিয়ে প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনকে অনলাইন সাংবাদিকতার নামে যারা অপসাংবাদিকতা করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দাবী জানানো হয়। সাধারণ সম্পাদকের প্রতিবেদনে বলা হয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সাংবাদিকতার নীতিমালা পাস হতে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর নীতিমালায় সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতার বিষয়টিকে ইতিবাচক ধারায় প্রণয়নের ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশনা দিবেন। শিক্ষায় অগ্রসরমান ১৬ কোটি মানুষের বাংলাদেশ সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের জন্য অনেক সুযোগ নিয়ে আসবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সাধারণ সভায় গত ৬ মাসে দেশ-বিদেশে যারা মৃত্যুবরন করেছেন তাদের রুহের প্রতি শান্তি কামনায় এক মিনিট দাড়িয়ে নীরবতা পালন করা হয়। সভায় গত ৬ মাসের উন্নয়ন কর্মকান্ড ও বিভিন্ন কার্যক্রমের চিত্র তুলে ধরা হয়। সভায় ২০২০ সালের ১ জানুয়ারী থেকে পুরো বছর জুড়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উদযাপনের জন্য মানবেন্দ্র বটব্যালকে আহবায়ক, এস.এম জাকির হোসেনকে সদস্য সচিব করে একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। এরা সভা করে এ কমিটির সদস্য সংখ্যা বাড়াবে বলে সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সাধারণ সভায় প্রেসক্লাবের বিভিন্ন দিক নিয়ে এবং সমস্যাবলী তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন মানবেন্দ্র বটব্যাল, মু: ইসমাইল হোসেন নেগাবান, সৈয়দ দুলাল, গোপাল সরকার, হুমায়ূন কবির, সৈয়দ মাহমুদ হোসেন চৌধুরী, এম.এম আমজাদ হোসাইন, কাজী মকবুল হোসেন, সাইদুর রহমান মিরন, জাকির হোসেন, কাজী আল মামুন, জিয়া শাহিন, জিয়া উদ্দিন বাবু প্রমুখ। দেবাশীষ চক্রবর্তীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতি কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল বলেন, এই প্রতিষ্ঠানটি কারো ব্যক্তিগত নয়, আগামীতে ক্লাবের নির্বাচন হবে, ২২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ঘোষণা দেব নির্বাচনের দিন-তারিখ। সবাই মিলেই ক্লাবটির উন্নয়ন করতে হবে। দায়িত্বে থাকার সময় চেষ্টা করেছি এর উন্নয়নে। কোন ভুলত্রুটি হলে ক্ষমা করে দিবেন। আগামীতে যারাই ক্লাবের দায়িত্বে আসবেন তারা আমাকে ডাকলে সবসময়ে পাশে থাকবো। আপনারা সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকবেন এটা আমার আশা। সবাই সুস্থ থাকুন, ভাল থাকুন, আমার জন্য দোয়া করবেন।