ভারতের কিছু বললেই তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠে আ’লীগ: রিজভী

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক | ১৬:৫২, অক্টোবর ০৯ ২০১৯ মিনিট

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আওয়ামী লীগ কিংবা শেখ হাসিনা নিজেদের সমালোচনা কিছুটা সহ্য করতে পারলেও ভারত নিয়ে কোন সমালোচনা হলেই তারা সেটা সহ্য করতে পারে না। ন্যায্য হিস্যার কথা বললেও আওয়ামী লীগ সরকার তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠে। তিনি বলেন, বাংলাদেশের ন্যায্য পাওনা পাওয়ার কোন অধিকার নেই, ন্যায্য হিস্যার দাবি তোলাটাও যেন ভয়ংকর অপরাধ। বুধবার (৯ অক্টোবর) নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। রিজভী বলেন, আবরার ফাহাদ আওয়ামী শাসকগোষ্ঠীর কাছে অপরাধী, কারণ সে আওয়ামী লীগের বন্ধু রাষ্ট্রের বাংলাদেশের প্রতি আচরণের সত্য ইতিহাস তুলে ধরেছিল। এজন্য তাকে জীবন দিতে হলো। এসময়ের শ্রেষ্ঠ দেশপ্রেমিক আবরার ফাহাদ। গোটা দেশকে এখন একটি টর্চার সেলে পরিণত করা হয়েছে দাবি করে রিজভী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলো এখন কন্সেন্ট্রেশন ক্যাম্প। ছাত্র-যুবক-আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা সবাই এখন লীগের টর্চার সেলের নির্মম শিকার। আপনারা দেখেছেন, যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে গ্রেপ্তারের পর সেখানে পাওয়া গেছে আধুনিক টর্চার সেল। যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল হোসেন সম্রাটের অফিসে পাওয়া গেছে টর্চার সেল। বুয়েট ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক উপসম্পাদক অমিত সাহার ২০১১ নম্বর কক্ষ যেখানে আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে নৃশংসকায়দায় হত্যা করা হয়, সেই কক্ষটিও একটি টর্চার সেল। তিনি বলেন, একদিকে চলছে গুম খুন অপহরণ আর বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড অপরদিকে সারাদেশে রয়েছে ছাত্রলীগ-যুবলীগের টর্চার সেল। বিএনপি নেতা রিজভী বলেন, বাস্তবে খুনী ও স্বৈরাচারের কাছে বিচার চাওয়ার সময় এখন না। এখন সময় এসেছে স্বৈরাচারের বিচারের। যারা নিজেদের ক্ষমতা আঁকড়ে রাখার জন্য একের পর এক দেশবিরোধী চুক্তি করে দেশের সব কিছু অন্যের হাতে তুলে দিচ্ছে তাদের বিচার করতে হবে।