আমতলীতে বিদেশ ফেরতদের ওপর নজর রাখছেন আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী

উপজেলা প্রতিনিধি | ১৭:২৫, মার্চ ২৪ ২০২০ মিনিট

বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা সারাদেশের ন্যায় বরগুনার আমতলীতে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত সচেতনতামূলক কর্মকান্ড পরিচালনার পাশাপাশি বিদেশ থেকে ফিরে আসা প্রবাসীদের খোজ খবর ও তাদের ওপর নজরদারি শুরু করেছেন।   সম্প্রতি বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর কেন্দ্রীয় কমান্ড থেকে দেশের প্রায় ৬১ লক্ষ সদস্যদের করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নির্দেশনা মোতাবেক জনসচেতনতামূলক লিফলেট প্রস্তুত করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ নির্দেশ অনুসারে তৃণমূল পর্যায়ে প্রত্যেক ইউনিয়ন- ওয়ার্ড, দলনেতা- দলনেত্রী ও সদস্য- সদস্যাদের করোনা ভাইরাস সতর্কতামূলক লিফলেট তৈরী করে সারাদেশের বাসস্ট্যান্ড,   রেলস্টেশন, হাট- বাজারসহ জনসমাগমস্থলে স্থানীয়ভাবে বিতরণ করেতে বলা হয়েছে। কেন্দ্রীয় কমান্ডের নির্দেশনা হিসেবে আমতলী উপজেলার আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর তৃনমূল পর্যায়ের সদস্যরা ১৪০০ লিফলেট আমতলী উপজেলার সর্বত্র বিতরণের কার্যক্রম শেষ করছেন। এছাড়া বিদেশ থেকে ফিরে আসা প্রবাসীদের ঠিকানা সংগ্রহ করে তাদের খোজ-খবর ও নজরদারি শুরু করেছেন। কুকুয়া ইউনিয়ন কমান্ডার খায়রুল ইসলাম বাবলুৃ মুঠোফোনে বলেন, করোনার সতর্কতার অংশ হিসেবে কোন ব্যক্তিকে আক্রান্ত সন্দেহ হলে তাকে হাসপাতালে আইসোলেশন রুমে থাকার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। জনগণকে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করা, বেশী বেশী সবুজ শাকসবজি ও ফলমূল খাওয়া এবং মাস্ক ব্যবহার করার জন্য পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।   আমতলী পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড মহিলা দলনেত্রী নুরজাহান বেগম বলেন, সবাইকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ড ওয়াশ ও সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার বিষয়ে অনুপ্রাণিত করার কাজ করছি। চাওড়া ইউনিয়নের পুরুষ দলনেতা মোঃ বশির উদ্দিন বলেন, সর্দি, জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টের রোগীদের কমপক্ষে ১৪দিন হাসপাতাল কোয়ারেন্টিন বা হোম কোয়ারেন্টিন থেকে চিকিৎসা নেওয়ার জন্য আমরা পরামর্শ দিচ্ছি। বিদেশ থেকে ফিরে আসা প্রবাসীদের নাম ঠিকানা সংগ্রহ করে তাদের খুজে বের করে তাদের ওপর নজরদারি রাখছি।   আমতলী উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা মোঃ আল আমিন মিয়া বলেন, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর কেন্দ্রীয় কমান্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা আমতলী উপজেলার সর্বত্র চৌদ্দশত লিফলেট বিতরণ করেছি। বিদেশ ফেরতদের নজরদারীতে রাখছি। এছাড়া আমার আওতাধীন বিভিন্ন ইউনিয়ন- ওয়ার্ড, দলনেতা- দলনেত্রী ও সদস্য- সদস্যরা করোনার সতর্কতার অংশ হিসেবে জনসাধারণকে সচেতন করতে মাঠে কাজ করছে।