ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১

Motobad news

ঘূর্ণিঝড় গুলাবের প্রভাবে সাগর উত্তাল

ঘূর্ণিঝড় গুলাবের প্রভাবে সাগর উত্তাল

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’-এ পরিণত হওয়ায় সাগর উত্তাল রয়েছে। দেশের সব সমুন্দ্রবন্দরকে দুই নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মো. আবদুর রহমান খান জানিয়েছেন, উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন পশ্চিমমধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’ আরও পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ৬টায় একই এলাকায় অবস্থান করছিল। এটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৬৬৫ কি.মি. দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৬৩০ কি.মি. দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৫২৫ কি.মি. দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ৫৩০ কি.মি. দক্ষিণে অবস্থান করছিল। ঘূর্ণিঝড়টি আরও পশ্চিম-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪ কি.মি. এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ৬২ কি.মি., যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কি.মি. পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়টির কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই উত্তাল রয়েছে।

এ অবস্থায় চট্টগ্রাম কক্সবাজার, মংলা এবং পায়রা সমুদ্রবন্দরগুলোকে দুই নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলার সমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাদেরকে গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা
হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড়টির নাম দিয়েছে পাকিস্তান, বাংলায় যাকে গোলাপ বলা হয়।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছে, এটি বাংলাদেশের উপকূলে আছড়ে পড়ার শঙ্কা নেই। কেননা, এটি গতিমুখ ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের দিকে।

গুলাব-এর প্রভাবে দেশের বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বেড়েছে। আরো কিছুটা বাড়বে। মঙ্গলবার পর্যন্ত এই প্রবণতা অব্যাহত থাকবে।

এদিকে পূর্ব মধ্য সাগরে আরেকটি নিম্নচাপ তৈরি হচ্ছে। সেটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলে পশ্চিমবঙ্গ এবং খুলনা উপকূলের দিকে আসতে পারে।


এসএম