ঢাকা বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২

Motobad news

পরকীয়ার বলি দুই শিশু: কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা ?

পরকীয়ার বলি দুই শিশু: কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা ?

বরিশালে পৃথক দুই মায়ের হাতে ২ শিশু হত্যার ঘটনা ভাবিয়ে তুলেছে সবাইকে। দুই মা নিজের পরকীয়া প্রেমিকের সাথে ‘অনৈতিক কর্মকাণ্ড’ তাদের সন্তানরা দেখে ফেলায় তাদের হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। সামাজিক অবক্ষয়ের কারণে এমন ঘটনা ঘটছে বলে মনে করেন নারী বিশেষজ্ঞরা।

এ অবস্থায় সমাজ পরিবর্তনের জন্য সমন্বিত উদ্যোগ চেয়েছেন শিক্ষাবিদরা। পরকীয়া প্রেমের কারণে সন্তান হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত হলে অন্য মায়েরা সতর্ক হবে বলে প্রত্যাশা আইনজীবীদের। এই ধরনের অপরাধ কমাতে সামাজিক ও ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলার পাশাপাশি সুস্থ সাংস্কৃতিক চর্চা বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন পুলিশের কর্মকর্তারা। 
 
মায়ের কোলে সন্তান সব চেয়ে নিরাপদ। এটাই চিরন্তন। কিন্তু বরিশালের উজিরপুরে গত ২৭ মে রাতে শিশু দীপ্ত মন্ডল (৮) এবং সদর উপজেলার শায়েস্তবাদে একই দিন দুপুরে শিশু তন্নী আক্তারকে (১৩) শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনা ঘটে। পরকীয়া প্রেমিকের সাথে মায়ের সম্পর্কের বিষয়টি দেখে ফেলায় তাদের হত্যা করা হয়। উজিরপুর থানার ওসি আলী আর্শাদ এবং নগরীর কাউনিয়া থানার ওসি আব্দুর রহমান মুকুল এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

বরিশাল মহিলা পরিষদের সভাপতি নারী বিশেষজ্ঞ রাবেয়া বেগম জানান, মায়ের পরকীয়া প্রেমের কারণে দুই শিশুকে প্রাণ দিতে হয়েছে। গর্ভধারিণী মা যখন তার সন্তান হত্যা করে এর চেয়ে বড় ভাবনার বিষয় আর কিছু হতে পারে না। 
তিনি বলেন, সামাজিক অবক্ষয়ের কারণে এমন ঘটনা ঘটছে। দাম্পত্যে সুখ না হলে স্বামী এবং স্ত্রী উভয়েই বিপদগামী হয়। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য সামাজিক ও পারিবারিক বন্ধন বাড়ানো এবং সুস্থ সমাজ বিনির্মাণ করতে হবে। একই সাথে বিদেশি টেলিভিশন চ্যানেলের বিকৃত সিরিয়াল বন্ধ করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। 

পরিবর্তনশীল সমাজের সাথে খাপ খাওয়াতে জনচসেতনতা বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. ছাদেকুল আরেফিন। তিনি বলেন, পরকীয়া এখন সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। এই ব্যাধি এখন জীবন কেড়ে নিচ্ছে। এই সমস্যা সমাধানের পথও রয়েছে। নৈতিক শিক্ষার পাশাপাশি আইনের কঠোর প্রয়োগ এবং সুস্থ সামাজিক মূল্যবোধ জাঁগিয়ে তুলতে সমন্বিত উদ্যোগ নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।
 
বরিশালে পরকীয়ার কারণে দুই সন্তান হত্যাকারী দুই মায়ের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেছেন বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট মানবেন্দ্র বটব্যাল। নিম্ম আদালতের সর্বোচ্চ শাস্তি উচ্চাদালতেও বহাল থাকলে অন্য মায়েরা বা হবু মায়েরা সতর্ক হবেন বলে মনে করে এই সিনিয়র আইনজীবী। 

সার্বিক বিষয়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কমিশনার মোহাম্মদ এনামুল হক বলেন, মায়ের হাতে সন্তান খুনের চেয়ে বড় অপরাধ আর হতে পারে না। এর থেকে বড় উদ্বেগের খবর আর নেই। 

তিনি বলেন, এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য সকল স্তরে নৈতিক শিক্ষা দিতে হবে। সকল ধর্মীয় এবং সামাজিক অনুশাসন মেনে চলতে হবে। সুস্থ সাংস্কৃতিক চর্চা ফিরিয়ে আনতে হবে। একদিনে না হলেও এসব উদ্যোগ নিলে ধীরে ধীরে সমাজ থেকে পরকীয়া নামের ব্যাধি কমবে এবং মায়ের হাতে আর কোন সন্তানের জীবন যাবে না বলে মনে করেন অপরাধ বিশেষজ্ঞ এনামুল হক। 

উজিরপুরে শিশু দীপ্ত মন্ডল হত্যায় তার মা সীমা মন্ডল সহ ৪ জন এবং শায়েস্তাবাদে শিশু তন্নী আক্তার হত্যার ঘটনায় তার মা লিপি বেগম আদালতে স্বীকারোক্তমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। বর্তমানে তারা বরিশাল কারাগারে রয়েছেন। 


এএজে