ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১

Motobad news

আমি বাইরে রোগা, ভিতরে দারোগা: কাঞ্চন

আমি বাইরে রোগা, ভিতরে দারোগা: কাঞ্চন

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের হয়ে এবার প্রথম নির্বাচনে অংশ নেন জনপ্রিয় কমেডিয়ান কাঞ্চন মল্লিক। প্রথমবারেই বাজিমাত, বিজেপির প্রবীর ঘোষালের থেকে ৩৮ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয় ছিনিয়ে নেওয়া। অভিনেতা থেকে তিনি হয়ে গেছেন নেতা। নিজেকে নিজে ‘রোগা কাঞ্চন’ বলেই পরিচয় দেন।
 
জানা গেছে, কাঞ্চনের আসনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে। শেষ পর্যন্ত কাঞ্চনই হাসলেন। উত্তরপাড়া আপাতত অভিনেতা-বিধায়ক কাঞ্চন মল্লিকের দখলে। অভিনেতা থেকে নেতা, নতুন পদ পেয়েই রাজ্যবাসীর কাছে কৃতজ্ঞচিত্ত তিনি।

বললেন, ‘এতকাল আমাকে আপনারা শুধু একজন অভিনেতা হিসেবে দেখে এসেছেন। প্রচুর ভালোবেসেছেন আমাকে। জানি, আগামী দিনেও একইভাবে ভালোবাসবেন। ২০২১-এ আমার নতুন জীবন। মা-মাটি-মানুষের হাত ধরে রাজনীতিতে পা রেখেছি।’

‘সকলের শুভকামনায়, ভালোবাসায় আমি বিধায়ক কাঞ্চন মল্লিক’ বিনয়ের সঙ্গে বললেন কাঞ্চন। যদিও বিধায়কের বদলে নিজেকে ‘জননেতা কাঞ্চন মল্লিক’ হিসেবেই সবার সামনে তুলে ধরতে চান তিনি।

একই সঙ্গে আশ্বাস, অভিনয়ের পাশাপাশি জননেতা হিসেবেও তিনি সফল হতে চান। তাঁর নির্বাচনী এলাকার মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে চান। কাঞ্চন বলেন, ‘আমি সুখের সময়ে এসে দাঁড়াইনি, আমি লড়াইয়ের সময়ে এসে দাঁড়িয়েছি। কাজেই আমাকে বহিরাগত বলে যাঁরা সন্দেহ প্রকাশ করছেন যে আমি এলাকার জন্য কী কাজ করতে পারব, তাঁদের উদ্দেশে একটাই কথা বলব, আমি বাইরে রোগা, ভিতরে দারোগা।’
 
জানা গেছে, শুরুতে স্থানীয়দের মধ্যে অনেকেই কাঞ্চন মল্লিকের প্রার্থী হওয়া মেনে নিতে পারেননি। বিষয়টা প্রকাশ্যেই ছিল। অবশ্য কাঞ্চনও সতর্ক থেকে তা সামাল দিয়েছেন।

ভোট প্রচারের মঞ্চ থেকেই তাঁদের উদ্দেশে কাঞ্চনের মন্তব্য, ‘যেদিন থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উত্তরপাড়া বিধানসভা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হিসেবে আমার নাম ঘোষণা করেছেন, সেদিন থেকেই প্রকাশ্যে হোক কিংবা কানাঘুষো, আমার নামের পাশে ‘বহিরাগত’ শব্দটা খুব বেশি করে শুনতে পাচ্ছি। বলার আগে একটু ভালো করে ভেবে দেখুন, এই এলাকার সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় রয়েছেন, তিনি মূলত বাঁকুড়ার মানুষ। তাঁর নেতৃত্বে আজ হুগলি জেলা শান্তিতে ঘুমায়। উনি কি বহিরাগত? যাঁরা এখানকার স্থানীয় হয়েও রাজনৈতিক দল-বদলেছেন, সেসব সুখের পাখিরা উড়ে গিয়েছে।’
 
প্রথম জীবনে কলকাতায় একটি চানাচুর আর কোমল পানীয় কোম্পানিতে সেলসম্যান হিসেবে চাকরি করতেন কাঞ্চন মল্লিক। নিজেই বলতেন, ‘আমি বেচবাবু।’ কলকাতার একটি বড় পারলারেও চাকরি করেছেন কাঞ্চন।

অভিনয়টা ছিল ভেতরে। যোগ দিয়েছিলেন কলকাতা শহরের স্বপ্নসন্ধানী নাটকের দলে। টুকটাক কাজ শুরু করেন পর্দায়। ‘জনতা এক্সপ্রেস’ নামের একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করে সাড়া ফেলেন। বেশ কিছু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। মূলত কমেডিয়ান হিসেবেই পর্দায় দেখা যায় তাঁকে। 


/ইই