ঢাকা বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২

Motobad news

কলাপাড়ায় সংখ্যালঘু পরিবারের বসত ঘর ভাংচুরের অভিযোগ

কলাপাড়ায় সংখ্যালঘু পরিবারের বসত ঘর ভাংচুরের অভিযোগ

কলাপাড়ায় আদালতের আদেশ অমান্য করে সংখ্যালঘু পরিবারের বসত ঘর ভাংচুর, লুটপাট ও দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পৌর শহরের ৮নং ওয়ার্ড কলেজ রোড এলাকার সুমন সিকদারের বাড়িতে এ লুটপাট ও দখলের ঘটনাটি ঘটেছে।

সুমন সিকদার তার লিখিত অভিযোগে জানান, দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে বসবাস করে আসছি। খেপুপাড়া মৌজার ৯৪৬০ নং দাগের ২ একর ৩০ শতাংশ জমি নিয়ে প্রতিবেশি মৃত গোলাম মোস্তফা সেলিমের স্ত্রী সালমা বেগমের সাথে বিরোধ থাকায় কলাপাড়া বিজ্ঞ সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা চলমান রয়েছে।

ওই জমিতে মুছা গাজী, সালমা বেগম, মেহেদী হাসান ও মামুন পাকা ভবন নির্মান করতে গেলে জমির মালিক ওই চার জনকে আসামী করে উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গত ১১ এপ্রিল অপর একটি মামলা করে। আদালতের মামলা নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত আসামীগন কলাপাড়া বিজ্ঞ সিনিয়র সহকারী জজ আদালতের নির্দেশ মানিয়া চলিবেন।

সুমন পরিবার পরিজনদের নিয়ে গত সোমবার (২৩ মে) আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যায়। সেই সুযোগে বেলা ১১ টায় আদালতের নির্দেশকে উপেক্ষা করে পুনরায় মুসা গাজী, মেহেদী হাসান, সালমা বেগম, মামুন হাওলাদারের নেতৃত্বে আরও ৪ থেকে ৫ জন রান্না ঘরের টিনের বেড়া ভেঙ্গে ভিতরে থাকা মালামাল লুট করে নেয় ও দখলের চেষ্টা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা প্রায় এক লক্ষ টাকার ক্ষতি করেছে বলে তিনি জানিয়েছে।

এ বিষয়ে মুসা গাজী বলেন, আমি ঘটনার সাথে জড়িত নই, আমার শ্যালক মেহেদী হাসান লোক দিয়ে আংশিক বেড়া ছুটিয়েছেন।
কলাপাড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.জসীম জানান, আমাদের কাছে এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ আসলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 


এএজে