ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

Motobad news

অর্থ সম্পদ থাকলেই কোনো দেশ উন্নত হয় না : সংসদে শাহজাহান ওমর

 অর্থ সম্পদ থাকলেই কোনো দেশ উন্নত হয় না : সংসদে শাহজাহান ওমর
গুগল নিউজে (Google News) দৈনিক মতবাদে’র খবর পেতে ফলো করুন

প্রাকৃতিক সম্পদ ও অর্থ সম্পদ থাকলেই কোনো দেশ উন্নত হয় না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য শাহজাহান ওমর। এর জন্য রাষ্ট্রীয় পরিকল্পনা দরকার বলেও তিনি জানান।

আজ রবিবার জাতীয় সংসদের অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের উপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

শাহজাহান ওমর বলেন, কোনো দল চিরস্থায়ী থাকে না। রাজনীতিতে একটা গ্লোরি আছে যে, সব সময় জিতা এর ভিতরে কোনো গ্লোরি নাই। কখনও জিতবে, কখনও হারবে, আবার জিতবে আবার হারবে। এই সাইক্লেটের মধ্যেই গ্লোরি রান করে। আমাদের এখানে রাজনৈতিক দল বিশেষ করে আমার দল ১৯৫৮ সালে ক্ষমতা হারিয়েছে, ৭৫ সালে হারিয়েছে আবার ২০০১ সালে হারিয়েছে আল্টিমেন্ট জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ আবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে। টানা চতুর্থবার উনি প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন, উনার দল ক্ষমতায় এসেছে এ জন্য উনি কৃতিত্বেও দাবিদার। কোনো দেশ এবং জাতি যেমন প্রাকৃতিক সম্পদ, অর্থ সম্পদ থাকলেই উন্নতি লাভ করতে পারে না। এজন্য একটি সর্বজন স্বীকৃতি রাষ্ট্রীয় পলেসি দরকার। 

সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী মার্গারেট থ্যাচার বলেছিলেন, রাশিয়ায় আছে, তেল, গ্যাস, আয়রণ কিংবা গোল্ড সবকিছু কিন্তু রাশিয়ার অর্থনীতি মোস্ট লোয়ার দ্যান অব ক্লোজ নেইভার্স। আমরা অতদূর যাবো না আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ বার্মা, বার্মা আমাদের সাইজে ৫ গুণ। জনসংখ্যা তিনভাগের এক ভাগ, তাদের মাথা পিছু আয ১২শ’ আমাদের মাথা পিছু আয় ২৮শ’ ডলার। এটার কারণ পলেসি, বার্মাতে পলেসি নাই, মিলিটারি ক্ষমতা দখল করে, গণতান্ত্রিক সিস্টেমকে চলতে দেওয়া হয় না। ফল কি দারিদ্র বার্মা। আর আমাদের এই দেশে আমাদের গণতন্ত্র আমাদের মতো, আমাদের গণতন্ত্র ওয়েস্ট মিনিস্টার টাইপ হবে না, আমাদের গণতন্ত্র আমেরিকার মতো হবে যেখানে ইলেকট্ররাল কলেজের ২৭৩টা ভোট পেলেই হবে। আমাদের গণতন্ত্র ফ্রান্সের মতো হবে না যেখানে ৫১ ভাগ ভোট পেতে হবে, আমাদের গণতন্ত্র নর্থ কোরিয়ার মতো হবে না ডেমোক্রাটিক পিপলস রিপারলিক অব নর্থ কোরিয়া যেখানে ডেমোক্রেসির উপস্থিত নাই এক দলীয় শাসন। আমাদের গণতন্ত্র আমরা যে ধরনের মানুষ, সংস্কৃতি, সমাজ, শিক্ষা দিক্ষা সে অনুযায়ীই আমাদেও গণতন্ত্র প্রযোজ্য। আমরা যদি আমেরিকা, জাপান, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানীর উদাহরণ দেই আমরাতো ইংলিশ না, ব্রিটিশ না আমাদের গণতন্ত্র আমাদের মতো হতে হবে। দেখা যাকে আমাদের গণতন্ত্র চলমান কি না, এই গণতন্ত্রই একদিন আস্তে আস্তে আমরা হতো গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে পৌঁছে যাবো যে সমগ্র পৃথিবী আমাদেরকে ধন্যবাদ জানাবে।

তিনি বলেন, আমাদের রেমিটেন্স আরও বাড়ানো যায় যদি মধ্যপ্রাচ্যে যারা যায় তারা আরবি বলা শিখে যায় তাহলে অবশ্যই বেশী বেতনে চাকরি পাবে। এই শ্রীলঙ্কা, ফিলিপাইন যারা ইংলিশ জানে যার জন্য তারা বিদেশে ভালো ভালো চাকরি পায়। এই দেখেন ভারত আজকে বিশ্বব্যাংক বলেন, আইএমএফ বলেন, এশিয়ান ব্যাংক বলেন হু বলেন, ইউনেস্ক বলেন যত বড় বড় প্রতিষ্ঠান সব জায়গা ভারতীয় কারণ তারা ভাষা শিখেছে, ইংরেজি শিখেছে, আমরা ইংরেজি শিখি নাই। আজকাল স্কুলে ইংরেজি শিক্ষক নিয়োগের জন্য শিক্ষিত লোক পাওয়া যায় না যার জন্য ইংলিশ হয় না। আমাদের মতো অনুন্নত দেশে ইংলিশ অর্থনীতি, ইংলিশ কর্মসংস্থান, ইংলিশ শিল্প, ইংলিশকে যদি ধৈয্য সহকারে শিখতে না পারি, ভালো ভালো শিক্ষক নিয়োগ করতে পারি তাহলেই আমাদেরও দেশের উন্নতি হবে।
 


এইচকেআর
গুগল নিউজে (Google News) দৈনিক মতবাদে’র খবর পেতে ফলো করুন