ঢাকা সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১

Motobad news

লালমোহনে দুটি পরিবারের যাতায়াত পথে কাঁটা দিল প্রভাবশালীরা

লালমোহনে দুটি পরিবারের যাতায়াত পথে কাঁটা দিল প্রভাবশালীরা

ভোলার লালমোহনে জমি জবরদখল করার উদ্দেশ্যে অমৃত লাল দাসের বাড়ির পথে কাঁটা দিয়ে প্রতিবন্ধকাতা সৃষ্টি করে চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে প্রতিপক্ষ। ফলে সীমাহীন ভোগান্তিতে পরেছে দুটি পরিবার। গত ১৬ জুন (বুধবার) উপজেলার ধলীগৌরনগর ৬নং ওয়ার্ড এলাকার ওই এলাকার চরমোল্লাজী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

বাড়ির উঠোনে ও চলাচলের পথে কাঁটা দেয়ার ফলে জল কাদা মাড়িয়ে প্রায় আধা কিলোমিটার পথ ঘুরে প্রধান সড়কে উঠতে হয় দুটি পরিবারের মানুষদের। এ ঘটনায় গত ২১ জুন (সোমবার) ওই এলাকার মৃত মোস্তফা ভূইয়ার ছেলে আশিক এলাহি ও আবদুল আজিজসহ ৯জনের বিরুদ্ধে  লালমোন বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত মামলা দায়ের করেছেন ভূক্তভোগী অমৃত লাল দাস। 

মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, অমৃত লাল দাসের বাড়ির চলাচলের সরকারি রাস্তা থেকে বাড়ী পর্যন্ত পথে কাঁটা বিছানো। তার বাড়িতে গিয়েও দেখা যায়, বাড়ির উঠোনের মধ্যে কাঁটা দিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে যাওয়ার আসার পথ। 

ভূক্তভোগী অমৃত লাল দাস অভিযোগ করে বলেন, দাদা ও বাবার সময় থেকেই এই বাড়িতেই বসবাস করে আসছি। তবে পার্শ্ববর্তী আশিক এলাহিসহ তাদের লোকজন আমাদের জমি জবরদখলের উদ্দেশ্যে বাড়ির পথে কাঁটা দিয়ে চলাচলের পথ আটকে দিয়েছে। 

স্থানীয় পর্যায়ে একাধিকবার শালিস হলেও তারা কোনও কাগজপত্র না দেখিয়ে জোরপূর্বক আমার চলাচলের পথ বন্ধ করে দেয় এবং আমাকে বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। আমরা হিন্দু, অন্যদিকে তারা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের ভয়ে এলাকার লোকজনও কিছু বলার সাহস পায়না। 

তাই সুবিচারের আশাায় মহামান্য আদালতের আশ্রয় নিয়েছি। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আশিক এলাহি ভূইয়া বলেন, আমাদের জমিতে আমরা কাঁটা দিয়েছি। তবে মানবিক ক্ষেত্রে এটা উচিৎ না হলেও তারা ফয়সালায় বসেনা বিধায় কাঁটা দিতে বাধ্য হয়েছি। 

এদিকে একটি বাড়ির লোকজনের চলাচলের পথ অবরুদ্ধ করে রাখায় এলাকায় সাধারণ মানুষের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। তাদের জমি সংক্রান্ত বিরোধ থাকলে তা মিমাংসার মাধ্যমে সমাধান করা উচিৎ, এভাবে দুটি হিন্দু পরিবারকে অবরুদ্ধ করা মোটেও কাম্য নয়। তাই এমন অপকর্মরোধে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন ভূক্তভোগী পরিবারসহ স্থানীয় সচেতনমহল।
 


এইচকেআর