ঢাকা বুধবার, ১২ মে ২০২১

Motobad news

মেসেজে ফিশিং লিঙ্ক থেকে সাবধান

মেসেজে ফিশিং লিঙ্ক থেকে সাবধান
ছবি : সংগৃহীত

হঠাৎ স্মার্টফোনের স্ক্রিনে একটি বার্তা এলো হয় হোয়াটসঅ্যাপে অথবা সরাসরি মেসেজে- আপনার ডেলিভারি রেডি, প্যাকেজটির অবস্থান জানতে নিচের লিঙ্কটি অনুসরণ করুন। এরপর একটি হইপারলিংক দেওয়া।

আবার কখনো কখনো অ্যামাজন প্রাইম বা নেটফ্লিক্সে ফ্রিতে সাবস্ক্রিপশনের অফারের লিঙ্ক। এসব লিঙ্কে ক্লিক করলেই হোয়াটসঅ্যাপ তো বটেই, গোটা ফোনের নিয়ন্ত্রণ চলে যাবে অন্যের হাতে।

হ্যাকার গ্রুপটি হোয়াটসঅ্যাপকে গোলাপি রঙে রূপান্তর করার নামে ভাইরাসযুক্ত একটি লিঙ্ক বিভিন্ন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে ছড়িয়ে দিচ্ছে। এতে ক্লিক করলে ব্যবহারকারীদের ফোন হ্যাক হতে পারে। এমনকি নিজের হোয়াটসঅ্যাপ আইডিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে সৃষ্টি হতে পারে নানা জটিলতা।

গত দুই সপ্তাহে ভয়াবহ রকম বেড়েছে এ ধরনের মেসেজ এবং এগুলো আদতে কোনো প্যাকেজ সরবরাহ তথ্য আপনাকে দেবে না। হ্যাঁ, প্যাকেজ ট্র্যাক করার একটি অ্যাপ আপনাকে ইনস্টল করতে বলবে ঠিকই। ওই অ্যাপ আসলে একটি স্পাইওয়্যার। এখন পর্যন্ত এটি আক্রমণ করছে অ্যান্ড্রয়েড ফোনকেই।

সাইবার বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন এসব এমন ভুয়া লিঙ্ক এড়িয়ে চলতে। মাল্টিপল অ্যান্টিভাইরাস ইঞ্জিন এ লিঙ্কের মাধ্যমে ফোনে প্রবেশ করে ব্লকড হয়ে যাচ্ছে। এ ধরনের লিঙ্ক ফরওয়ার্ড ও ক্লিক না করার কথা বলা হয়েছে। অনেক ক্ষেত্রেই অ্যাপটির নাম দেখায় ফ্লুবট। এর ক্ষমতা রয়েছে মোবাইল ফোন হ্যাক করার এবং স্পর্শকাতর তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার।

সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা জানান, ব্যবহারকারীদের হোয়াটসঅ্যাপ পিঙ্ক নিয়ে সতর্ক হতে হবে। হ্যাশট্যাগ হোয়াটসঅ্যাপ পিঙ্ক নামের কোনো লিঙ্কে ক্লিক করবেন না। ক্লিক করলে নিজের ফোনের সব ডাটা বেহাত হয়ে যেতে পারে। ব্যবহারকারীদের উচিত হবে বিশেষ এ ম্যালওয়্যার বিষয়ে অসম্ভব সতর্ক থাকা। আরও সতর্ক থাকা উচিত কোনো টেক্সট মেসেজ বা এসএমএস-এর সঙ্গে আসা লিঙ্কে ট্যাপ করার বিষয়ে বলছিলেন মিল্লাত পান্না।

যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল সাইবার সিকিউরিটি সেন্টার এক সতর্কবার্তায় বলেছে, এ ম্যালওয়্যারটির ক্ষমতা আছে নিজে থেকেই একইরকম মেসেজ তৈরি করে আক্রান্ত মোবাইলের ফোনবুকে গিয়ে অন্য কন্টাক্টসেও পাঠানোর। ম্যালওয়্যারটি ছড়াচ্ছেই এভাবে।

সইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান সিসিএস ইনসাইটের প্রধান বিশ্লেষক বেন উড বলছেন, ভোডা ফোন তার গ্রাহকদের জন্য সতর্কবার্তা ইস্যু করার বিষয়টিই জানান দেয় যে, বিষয়টি কতটা গুরুতর। যদিও হোয়াটসঅ্যাপে হ্যাকারদের আক্রমণের ঘটনা অথবা ডেলিভারি প্যাকেজের মেসেজ দিয়ে তথ্য হাতিয়ে নেওয়া এটাই প্রথম নয়। ভুয়া সংবাদ কিংবা গুজব ছড়ানোর পরিবর্তে ফেসবুকের মালিকানাধীন এ প্লাটফর্মটি বর্তমানে বেশি ব্যবহার করা হচ্ছে আর্থিক ও চাকরিসংক্রান্ত জালিয়াতি ইত্যাদি ক্ষেত্রে। কিন্তু এবারের ব্যতিক্রম হলো এটি মোবাইল ফোনে ইনস্টল হয়ে বসে এবং মেসেজ পাঠাতে থাকে নতুন শিকার পাওয়ার জন্য।


এমবি