ঢাকা রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

Motobad news

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে বাংলাদেশে ৪৩৩ জন গ্রেপ্তার 

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে বাংলাদেশে ৪৩৩ জন গ্রেপ্তার 

অনলাইনে সাধারণ মানুষের মত প্রকাশের স্বাধীনতার ওপর দমন-পীড়ন বন্ধ করতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। চলতি বছর ১১ জুলাই পর্যন্ত ডিজিটাল প্রযুক্তি আইনের (ডিএসএ) মামলায় অন্তত ৪৩৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কারা অধিদপ্তরকে উদ্ধৃত করে লন্ডনভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল তাদের সাম্প্রতিক এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

সোমবার (২৬ জুলাই) ‘বাংলাদেশ: ভিন্নমতের কোনো স্থান নেই—অনলাইনে মতপ্রকাশের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে অভিযান’ শিরোনামের প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের প্রকাশিত ২৪ পৃষ্ঠার ওই প্রতিবেদনে লেখক মোশতাক আহমেদ, কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরসহ ডিএসএর আওতায় আটক ১০ জনের ঘটনার পর্যালোচনা করা হয়েছে।

তাদের ঘটনাগুলো পর্যালোচনা করে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই আইনে কর্তৃপক্ষকে এতটাই ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুধু ক্ষমতাধর ব্যক্তিদের সমালোচনার অভিযোগে তাঁদের গুম, নিবর্তনমূলক গ্রেপ্তার, নির্যাতনসহ ব্যাপকতর মানবাধিকার লঙ্ঘন হয়েছে।

অ্যামনেস্টির ব্রিফিংয়ে বলা হয়, ২০২১ সালের জুলাই পর্যন্ত বাংলাদেশে ডিএসএ’র অধীনে হওয়া মামলায় অন্তত ৪৩৩ জন কারাবন্দি আছেন; যাদের বেশির ভাগকেই অনলাইনে ভুল এবং আক্রমণাত্মক তথ্য প্রকাশের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। যাদের আইনটির লক্ষ্য বানানো হয়েছে, তাদের মধ্যে সাংবাদিক, কার্টুনিস্ট, গায়ক, অ্যাক্টিভিস্ট, উদ্যোক্তা, শিক্ষার্থী, এমনকি লেখাপড়া না জানা এক কৃষকও রয়েছেন।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছে, ২০১৮ সালের অক্টোবরে ডিএসএ প্রবর্তনের পর থেকে এ পর্যন্ত বাংলাদেশে ২ হাজার ব্যক্তির বিরুদ্ধে ১ হাজার ৩০০টি মামলা করা হয়েছে।


এমবি