ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১

Motobad news

ঝুঁকি নিয়েই বাড়ি ছুটছে দক্ষিণ বঙ্গের মানুষ

ঝুঁকি নিয়েই বাড়ি ছুটছে দক্ষিণ বঙ্গের মানুষ

মহামারীর বিস্তার ঠেকাতে ৫ এপ্রিল এক সপ্তাহের লকডাউন দেয় সরকার। কিন্তু বিধিনিষেধ মানতে ঢিলেঢালাভাব, আর নিয়ম মানাতে কড়াকড়ির অভাবে পরিস্থিতির খুব একটা হেরফের হয়নি।

এমন বাস্তবতায় আবারও ৮ দিনের কঠোর বিধিনিষেধ দিলো সরকার। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ১৩ দফা নির্দেশনায় বলা হয়েছে; ১৪ এপ্রিল থেকে শিল্প-কারখানা চালু থাকলেও বন্ধ থাকবে; সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠান, দোকানপাট ও শপিংমল। চলবে না যানবাহনও।

লকডাউনে টিকা গ্রহণ ও জরুরি কাজ ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে খোলা থাকবে কাঁচাবাজার। রমজানে তারাবি ও জুমার নামাজের বিষয়ে সিদ্ধান্ত দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। ধানকাটার শ্রমিকের চলাচল নিশ্চিত করবে স্থানীয় প্রশাসন।

কঠোর লকডাউন ঘোষণায় গত কয়েকদিন ধরেই করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি নিয়েই ফিরছে দক্ষিণ বঙ্গের মানুষ। তবে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয় তাদের। দূরপাল্লার পরিবহন বন্ধ, তাই বাড়ির পথে ছুটে চলা মানুষের ভরসা ছিলো লোকাল বাস, ট্রাক, লেগুনা, মোটরসাইকেলসহ নানা যান। তবে কোথাও ছিলো না স্বাস্থ্যবিধির বালাই। ঢাকা-আরিচাসহ অন্যান্য মহাসড়কেও সারাদিনই ছিলো ঘরমুখো মানুষের চাপ।


টিএইচএ/