ঢাকা শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১

Motobad news

যেভাবে ডিমের তেল দিয়ে রূপচর্চা করবেন

যেভাবে ডিমের তেল দিয়ে রূপচর্চা করবেন
ছবি: সংগৃহীত

রূপচর্চায় বিভিন্ন প্রাকৃতিক তেলের ব্যবহার বাড়ছে। ডিমের তেল তার মধ্যে অন্যতম। বয়স ধরে রাখা ও প্রকৃতিপ্রদত্ত কোনো উপায়ে চুল পড়া সমস্যা সমাধানের জন্য অনেকেই এই তেল ব্যবহার করছেন। আজ আপনাকে জানাবো চুল তরতাজা রাখতে ডিমের তেলের গুণ সম্পর্কে। আসুন জেনে নেওয়া যাক-

ডিমের তেল কী?
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ডিমের তেল ব্যবহারে চুলে তরতাজাভাব আসে। ডিমের কুসুম থেকে এই তেল পাওয়া যায়। ইংরেজিতে একে এগ অয়েল বলা হয়। ট্রাইগ্লিসারাইড ও কোলেস্টরলে পূর্ণ এই তেল চুল ও ত্বকের জন্য উপকারী। চুলে খুশকির সমস্যা দেখা দিলে এই তেল দিতে হয়। এতে রয়েছে ওমেগা থ্রি ও ওমেগা সিক্স ফ্যাটি অ্যাসিড। এই তেল চুলে ব্যবহার করলে চুল পড়ার সমস্যা কমে যায়। একই সঙ্গে ডিমে থাকা কোলেস্টরল চুলকে নরম ও মসৃণ করতে সাহায্য করে।  

ডিমের তেল ব্যবহারের ইতিহাস
ডিমের তেল ব্যবহারের ইতিহাস অনেক পুরনো। একাদশ ও দ্বাদশ শতকে প্রচলিত চীনা ওষুধ ও গ্রিক নারীদের রূপচর্চা ছাড়াও ভারতীয় উপমহাদেশে আয়ুর্বেদশাস্ত্রে এর প্রচলন রয়েছে। সেই ধারাবাহিকতায় এখনও বিভিন্ন ক্রিম, লোশন ও প্রসাধনীতে এই তেল ব্যবহৃত হয়। 

ত্বকের যত্নে সহায়ক ডিমের তেল
ক্ষত সারিয়ে তোলার জন্য অনেকে এগ অয়েল বা ডিমের তেল ব্যবহার করেন। বিশেষ করে ত্বকের পুড়ে যাওয়া ক্ষত ও দাগ দূর করতে এই তেল অনেক উপকারী। একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, ডিমের তেল ব্যবহার করে বয়সজনিত বলিরেখা, কুঞ্চন, ত্বক ঝুলে যাওয়াসহ অনেক সমস্যার সমাধান করা যায়। বয়স ধরে রাখতে যেখানে মানুষ বোটক্স, সিরাম ইনজেকশন ও কসমেটিক সার্জারির মতো নানা ধরনের উপায় অবলম্বন করছেন, সেখানে ডিমের তেল এ কাজের সহায়ক। তাছাড়া এই তেল ব্যবহার করে ত্বকের প্রদাহ রোধ করা সম্ভব। 

ডিমের তেলের উপকারিতা
ডিমের কুসুম থেকে তৈরি হওয়া এই তেল স্বাস্থ্যকর ফ্যাট ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ। বয়স ধরে রাখার ক্ষেত্রেও অনেকে একে ভরসা করেন। এতে ভিটামিন বি-৩, ভিটামিন এ ও ভিটামিন ই রয়েছে। নিয়মিত ডিমের তেল মালিশ করলে ত্বক সুন্দর হয়। 

ডিমের তেল বা এগ অয়েলের সবচেয়ে বড় গুণ হলো, যাদের মুরগির ডিমে অ্যালার্জি রয়েছে তারাও এটি ব্যবহার করতে পারেন। কারণ এই তেল ডিমের কুসুম থেকে তৈরি হওয়ায় অ্যালার্জির কোনো উপকরণ থাকে না। ডিমের তেলে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টি-ফাংগাল উপকরণ থাকে। যা ত্বকের অযাচিত দাগ ও ব্রণ দূর করতে সহায়ক ভূমিকা রাখে। ডিমের তেল ত্বককে আরও উজ্জ্বল করে তোলে।


এমইউআর