ঢাকা শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

Motobad news

দীর্ঘ আয়ু লাভের চাবিকাঠি কী, জানেন?

দীর্ঘ আয়ু লাভের চাবিকাঠি কী, জানেন?
গুগল নিউজে (Google News) দৈনিক মতবাদে’র খবর পেতে ফলো করুন

আয়ু বাড়াতে কে না চায়। এই সুন্দর পৃথিবীতে সবাই দীর্ঘদিন বাঁচতে চায়। প্রতিদিনের কিছু অভ্যাস বা কাজে কয়েকটি পরিবর্তন আনলেই দীর্ঘায়ু পেতে পারেন। এমনই দাবি করা হয়েছে সাম্প্রতিক এক গবেষণায়। ব্যস্ততার কারণে নানা অজুহাত দেখিয়ে আমরা অনেকেই শরীরচর্চা এড়িয়ে চলি। গবেষকদের মতে, নিয়মিত শরীরচর্চা করাই দীর্ঘ আয়ু লাভের চাবিকাঠি। তবে সুস্থ জীবনযাপন বিশেষ করে স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস, দৈনিক শারীরিক ব্যায়াম ও মনোচাপ থেকে মুক্তিতেও আয়ু বাড়ে।

সারাদিন বেশির ভাগ সময়েই আমরা বসে কাজ করি। আর সে কারণেই শরীরে বাসা বাঁধে নানা রোগব্যাধি। গবেষণায় জানা গেছে, শরীরচর্চা করলে শুধু যে সচল থাকবেন তা নয়, মানসিক স্বাস্থ্যও ভালো থাকবে ব্যায়ামের ফলে।

‘সিইউএইচকে জকি ক্লাব ইনস্টিটিউট অব এজিং’-এর গবেষকদের মতে, রোজ ১০ মিনিট ধরে দ্রুত গতিতে হাঁটার অভ্যাস ১৬ বছর পর্যন্ত আয়ু বাড়িয়ে দিতে পারে। তাদের মতে, অনিয়মের জেরেই অল্প বয়সে মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়ে। দীর্ঘ আয়ু পেতে হলে নিজেকে অনেক বেশি কর্মঠ রাখতে হবে। আমাদের বেশির ভাগেরই জীবনে শারীরিক খাটনি যত না হয়, তার থেকেও বেশি হয় মানসিক পরিশ্রম। তবে দীর্ঘায়ু লাভের জন্য ঘাম ঝরাতেই হবে। আসুন জেনে নিই সে রকম কিছু কৌশল-

বিরতি দিয়ে দৌড়ানো

যুক্তরাষ্ট্রের ব্যক্তিগত শরীরচর্চা প্রশিক্ষণ সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ‘ফিট’য়ের প্রশিক্ষক গ্যারি জিনেটি বলেন, “কার্ডিও’ ব্যায়ামের একাধিক উপকারিতা এক সঙ্গে নেওয়ার দারুণ একটি উপায় হলো ‘ইন্টারভেল রানিং’ বা বিরতি দিয়ে দৌঁড়ানো। অল্প সময়ে এই ব্যায়াম শেষ করে ফেলা যায় আর সারাদিন ক্যালরি খরচ হতে থাকে।”

ব্যায়াম শুরু করার আগে ১০ মিনিট হালকা জগিং করে শরীর গরম করে নিতে হবে। এরপর ২০ সেকেন্ড দৌঁড়াবেন আর ৪০ সেকেন্ড জগিং। এভাবে মোট ছয়বার করতে হবে। ধীরে ধীরে যদি শরীর নিতে পারে তবে তীব্রতা বাড়াতে হবে। যেমন- ৩০ সেকেন্ড দৌড়, ৩০ সেকেন্ড জগিং কিংবা চড়াই রাস্তায় ব্যায়ামটি করা। এই ব্যায়ামের মাধ্যমে হৃদসম্পন্দ বাড়বে এবং পুরো শরীরে অক্সিজেন পৌঁছাবে। 

সাইকেল চালানো

সাইকেল চালানো হৃদযন্ত্রের জন্য অত্যন্ত উপকারী একটা ব্যায়াম। দৌড়ানোর তুলনায় সাইকেল চালানোতে হাঁটুর ওপর চাপ কম পড়ে। ফলে ব্যায়াম করতে গিয়ে আহত হওয়া সম্ভাবনা কম।

বিরতি দিয়ে দৌড়ানোর মতো সাইকেলও বিরতি দিয়ে চালানো যেতে পারে। ঘরের ভেতরেই ‘স্টেশনারি বাইক’য়ে বিরতি দিয়ে সাইকেল চালানোর অনুশীলন করা যাবে। এখানেও শুরুতে ১০ মিনিট ‘ওয়ার্ম আপ’ করে নিতে হবে।”

‘স্টেশনারি বাইক’য়ের ‘রেজিস্ট্যান্স’ কম বেশি করে বিরতি দিয়ে চালানোর কাজটি করতে হবে। ২০ সেকেন্ড বেশি ‘রেজিস্ট্যান্স’ দিয়ে চালাতে হবে, পরে ৪০ সেকেন্ড কম ‘রেজিস্ট্যান্স’য়ে চালাতে হবে। মোট ছয়বার।

সাঁতার

সাঁতার কাটা কোনো হাড়ের জোড়ে চাপ ফেলে না; বরং তাদের উপকার করে।বিভিন্নভাবে সাঁতার কাটা যায়, আর প্রতিটি ধরনে আলাদা আলাদা পেশি ব্যবহার হয়। ফলে এই একটি ব্যায়াম দিয়ে পুরো শরীরকে খাটিয়ে নেওয়া যাবে।

শুরুটা অবশ্যই মৃদু মাত্রায় হবে।যেভাবে সাঁতার কাটতে সবচাইতে সাচ্ছন্দ্য বোধ হয় সেটা দিয়েই শুরু করতে হবে। সময়ের সঙ্গে মানিয়ে ওঠা শুরু হলে অন্যভাবে সাঁতার কাটার অনুশীলন করতে হবে।


এএজে
গুগল নিউজে (Google News) দৈনিক মতবাদে’র খবর পেতে ফলো করুন