ঢাকা বুধবার, ১২ মে ২০২১

Motobad news

 শত্রু যখন ফ্রেন্ড লিস্টে 

 শত্রু যখন ফ্রেন্ড লিস্টে 

 

অনলাইন ছাড়া এখন সময় কাটতেই চায় না। এক কথায় বলা যায়- সোশ্যাল নেটওয়ার্কে না থাকলে পেটের ভাত হজম হয় না! এই সোশ্যাল নেটওয়ার্কে পরিচিত হতে অনেকেই আপনাকে পাঠাতে পারে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট। তাই বলে সবাইকে অ্যাকসেপ্ট করবেন? একেবারে অপরিচিতদের ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট অ্যাকসেপ্ট করার পর আবার আপনার আইডি হ্যাক হয়ে যেতে পারে- এমন ভাবারও কিছু নেই। তবে কিছু কারণে অজানা-অচেনা কাউকে অ্যাকসেপ্ট না করাই ভালো। চলুন, কারণগুলোতে চোখ বোলাই-

ব্যক্তিগত তথ্য চুরি 

নানা রকম চুরি থেকে শুরু করে প্রতারণামূলক কাজে ব্যবহৃত হতে পারে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য। নিজের তথ্য কাজে লাগিয়ে আর্থিকসহ আরও নানা ক্ষতি করতে পারে অপরিচিত বন্ধুরা। ইন্টারনেটে কারও পরিচয় সম্পর্কে পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যেমন কঠিন তেমনি আপনার আসল নাম, মা-বাবার নাম, কোথায় সময় কাটান- সেসব কাজে লাগিয়ে আপনার নামকে ব্যবহার করে আপনার কাছের মানুষদের কাছ থেকেও সুবিধা নিতে পারে অনেকে। আবার আপনার তথ্য নিয়ে ফেসবুকে অন্য অ্যাকাউন্ট খুলে বিব্রতকর কাজ করেও বেড়াতে পারে। বিশেষ করে মেয়েদের ক্ষেত্রে এটা হতে পারে অস্বস্তি আর বিপদের বড় কারণ।

নিরাপত্তায় হুমকি স্প্যাম

বিরক্তিকর স্প্যাম আর ওয়েব লিঙ্কের জ্বালা প্রায় আমাদের সবাইকে কমবেশি ভোগ করতে হয়। আর যদি অপরিচিত ফেসবুক বন্ধুদের মধ্যে হ্যাকার থাকে, তবে ইচ্ছা করে আপনার অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড নেওয়ার জন্যও পাঠাতে পারে এমন সব জিনিস। আর এসবে ক্লিক করলেই নানা ঝামেলার শিকার হতে হয়, যেটা আপনার কম্পিউটার আর তাতে সংরক্ষিত তথ্যের নিরাপত্তার জন্য হুমকির কারণ হতে পারে।


গুজব ছড়ানো

কম বয়সীদের উগ্র মস্তিস্কের নানা অপরাধমূলক কার্যক্রম থেকে শুরু করে ধর্মীয় মৌলবাদের প্ল্যাটফর্ম হিসেবে ফেসবুক ব্যবহার হয়। আমাদের দেশেও বিভিন্ন নাশকতাকারীর মধ্যে ফেসবুকে পরিচয় ঘটার প্রমাণ আছে। এর সঙ্গে ব্ল্যাকমেইল থেকে শুরু করে মানসিক নির্যাতন তো আছেই। প্রশ্নপত্র ফাঁস থেকে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়া আর অন্যকে ফাঁসাতে গুজব ছড়ানোর সঙ্গেও ফেসবুক ব্যবহারের প্রমাণ আছে।

সদ্য টিনএজে পা রাখাদের আবেগ কাজে লাগিয়ে নানা অপরাধে জড়ানোর পাশাপাশি আছে অপরিচিতদের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর পরে নানা রকমের বিপত্তি। বাড়িতেও বিপদ ডেকে দিতে পারে অপরিচিত ফেসবুক বন্ধু।

লুট অথবা গুম!

আপনার বাড়ির ঠিকানা আর আপনি কোথায় যান, কার সঙ্গে আড্ডা দেন সেটা জানা থাকলে ছিনতাই, চুরি, ডাকাতি করা অনেকটাই সহজ হয়ে যায় অপরাধীদের জন্য। এমনকি আপনি কবে থেকে ছুটি কাটাতে কোথায় যাচ্ছেন, তা জানা থাকলেও আপনার বাড়ি লুটে নিতে সময় লাগবে না অপরাধীদের। আর যে কোনো সময় গুমও করে দিতে পারে আপনাকে!

নিজেই যখন বিপদ

অপরিচিতদের অ্যাকসেপ্ট করার সঙ্গে যদি আপনার ফেসবুকের নিরাপত্তা দুর্বল থাকে, তাহলে আপনার বন্ধুরাও বিপদে পড়তে পারে। তবে কাকে অ্যাকসেপ্ট করবেন তা আপনার সিদ্ধান্ত। ভালোভাবে দেখে আপনার চেনাদের অ্যাড করলে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং হবে ঝুঁকিমুক্ত। একটু সচেতন থেকে, নিজেকে নিরাপদে রাখুন।


টিএইচএ/